আগৈলঝাড়ায় শ্বশুর-শাশুড়িকে নির্যাতনের দ্বায়ে পুত্রবধূর কারাদন্ড - বিডি বুলেটিন আগৈলঝাড়ায় শ্বশুর-শাশুড়িকে নির্যাতনের দ্বায়ে পুত্রবধূর কারাদন্ড - বিডি বুলেটিন

বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
মির্জাগঞ্জে হতদরিদ্রের মাঝে চালডাল বিতরণ করেন মেহেদি হাসান অন্তর মহিপুরে অসহায় ও নি¤œ আয়ের মানুষের মাঝে কোষ্টগার্ডের খাদ্য সামগ্রী বিতরন কলাপাড়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌণ হয়রানির অভিযোগে মামলা, নির্যাতনকারী গ্রেপ্তার সুবিধা বঞ্চিত পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের বরিশাল মহানগর মহিলা মানবাধিকার কমিটি’র থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করোনা প্রতিরাধে হাত ধোয়ার বিশেষ ব্যবস্থা করলেন এমপি স্মৃতি ময়মনসিংহ ছাত্রলীগ নেতা হীরা’র উদ্যোগে অসহায় কর্মহীন পরিবারের মাঝে দ্রব্যসামগ্রী বিতরণ মোংলায় অসহায় কর্মহীন শ্রমজীবী মানুষের পাশে বাংলাদেশ নৌবাহিনী মির্জাগঞ্জে  বিভিন্ন রাস্তায়  জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয় চরফ্যাশনে সংখ্যালঘুদের ঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ
আগৈলঝাড়ায় শ্বশুর-শাশুড়িকে নির্যাতনের দ্বায়ে পুত্রবধূর কারাদন্ড

আগৈলঝাড়ায় শ্বশুর-শাশুড়িকে নির্যাতনের দ্বায়ে পুত্রবধূর কারাদন্ড

এস এম শামীম:
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় বৃদ্ধ শ্বশুর-শাশুড়িকে খাবার না দেওয়া, ঘর থেকে বের করে দেওয়া ও মারধর করার কারনে পুত্রবধূ মনিকা বৈরাগীকে এক মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। জানা গেছে, উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের আস্কর গ্রামে মঙ্গলবার রাতে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাস পুত্রবধূ মনিকা বৈরাগীকে এক মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। মনিকার শ্বশুর ভবসিন্ধু বৈরাগী জানান, ছয় মাস ধরে আমাকে ও আমার স্ত্রী বিমলা অধিকারীকে ঘরের বারান্দায় থাকতে দেয় মনিকা। আমাদের তিনবেলা খাবারও দেয় না। রান্নাঘরে রান্না করতে গেলে গালাগাল শুরু করে। এছাড়া আমাদের মারধরও করে। আমরা যতণ ঘরের বারান্দায় থাকি ততণ আমাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে থাকে। বিষয়টি আমার ছেলে খোকনকে জানলেও সে বউয়ের ওপর কোনও কথা বলতে পারে না। এভাবে দীর্ঘদিন ধরে চলছে। খাবার না দেওয়ায় শামুক সংগ্রহ করে তা বিক্রি করে যা পাই তা দিয়ে কোনোমতে আমাদের দু’জনের কোন রকমে চলে যায়। তিনি আরও বলেন, খাবার না দিলে আমার কোনও অভিযোগ নেই। কিন্তু মনিকা এখন আমাদের ঘর থেকে বের করতে উঠে পড়ে লেগেছে। এ কারণে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে সে। আমরা এখন কোথায় যাবো? তাই লিখিত ভাবে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্যারকে জানাই। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসার সুসান্ত বালা।

 633 total views,  9 views today

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018