নভেম্বরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আতঙ্কে উপকূল বাসি - বিডি বুলেটিন নভেম্বরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আতঙ্কে উপকূল বাসি - বিডি বুলেটিন

শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
কুয়াকাটায় আবাসিক হোেটেল থেকে ৬ পতিতা আটক ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকের নিয়ে পালাতে গিয়ে পুলিশের খাঁচায় শিক্ষক আগৈলঝাড়ায় অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি আগৈলঝাড়ায় রাজিহার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ভালো রেজাল্ট করলেই হবে না ভালো মানুষও হতে হবে: ইকরামুল হক টিটু আগৈলঝাড়ায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে জিআর মামলার আসামী গ্রেফতার আবরার হত্যাকাণ্ডে ২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার সিরিয়া যুদ্ধে এখন পর্যন্ত ২৯ হাজার শিশু নিহত মুন্সীগঞ্জে বাস-মাইক্রো সংঘর্ষে ৭ বরযাত্রী নিহত গোপালগঞ্জে গৃহবধু হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন
নভেম্বরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আতঙ্কে উপকূল বাসি

নভেম্বরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আতঙ্কে উপকূল বাসি

রিয়াজ মাহমুদ, পটুয়াখালী:
বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় বুলবুল প্রবল শক্তি নিয়ে এগিয়ে আসছে। আর নভেম্বর মাসে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আসার খবরে দক্ষিণ উপকূলের মানুষের মাঝে ভয় আর আতঙ্ক বিরাজ করছে। কারণ নভেম্বর মাসে যে সকল ঘূর্ণিঝড় হয়েছে সবগুলো ছিলো ভয়াবহ। এরমধ্যে ১৯৭০ সালরে ১২ নভম্বের এবং ২০০৭ সালে ১৫ নভম্বেররে ঘূর্ণিঝড় সিডর উপকূলীয় জেলা পটুয়াখালী লন্ডভন্ড করেছিলো। যার ক্ষত এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি খতিগ্রস্থরা। এদিকে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে নদ-নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে সামান্য বৃদ্ধি পেয়েছে। পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানান, জেলায় মোট ৪০৩ টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সার্বিক বিষয় মনিটরিং করতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। দূর্যোগে ত্রান কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ১শ মেট্রিকটন চাল, ২লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা,১৬৬ বান্ডিল টিন এবং ৩৫০০ টি কম্বল মজুত রাখা হয়েছে। পটুয়াখালী ইউথ ফোরামের সভাপতি মো. জহিরুল ইসলাম জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় সাধারণ মানুষকে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করছে ভলান্টিয়াররা। বাউফলের চন্দ্রদীপ এলাকার বাসিন্দা আবুল ফরাজি জানান, শুনছি বণ্যা হইবো। অবস্থা খারাপ দেখলে সাইক্লোন সেল্টারে যাবো। পায়রা সমুদ্র বন্দরের কর্মকর্তা মহিউদ্দিন খান জানান, পায়রা সমুদ্র বন্দরসহ জেলার সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড স্থগিত রেখে শ্রমিকদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। কলাপাড়া এলাকার বাসিন্দা লিটন মৃধা জানান, আবারও নভেম্বর মাসে বণ্যা হবে। আল্লাহ যানে কি হয়। অপর দিকে পটুয়াখালী নদী বন্দরের কর্মকর্তা খাজা সাদিকুর জানান, পটুয়াখালী অভ্যন্তরিন নৌরুটে চলাচল কারী ৬৫ ফুটের চেয়ে ছোট সকল নৌযান চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। ডাবল ডেকার লঞ্চ চলাচল বন্ধেে এখনও কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018