বেনাপোলে আটকে গেলে উপহারের ইলিশের প্রথম চালান - বিডি বুলেটিন বেনাপোলে আটকে গেলে উপহারের ইলিশের প্রথম চালান - বিডি বুলেটিন

মঙ্গলবার, ০২ Jun ২০২০, ০১:৫১ অপরাহ্ন

বেনাপোলে আটকে গেলে উপহারের ইলিশের প্রথম চালান

বেনাপোলে আটকে গেলে উপহারের ইলিশের প্রথম চালান

Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক : শারদীয় দুর্গাপূজায় শুভেচ্ছা হিসেবে ৫০০ টন ইলিশের প্রথম চালান ২৪ টন বেনাপোলে আটকে গেছে। রবিবার বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতে যাওয়ার কথা থাকলেও কাগজপত্র ঠিক না থাকায় সে চালান আটকে দেওয়া হয়। পর্যায়ক্রমে ১০ অক্টোবরের মধ্যে ৫০০ টন ইলিশ রপ্তানির নির্দেশনা রয়েছে।

কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বলছে, ভারতে ইলিশের প্রথম চালান দুপুরে যাওয়ার কথা থাকলে রপ্তানির জন্য কেউ কোনো কাগজপত্র দপ্তরে জমা দেয়নি। অবশ্য আজ সোমবার সকালে কাস্টম হাউসে কাগজপত্র দাখিল করা হবে বলে জানা গেছে।

ইলিশ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট এমি এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি মহিদুল হক বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত হয়। তিনি বলেন, রবিবার বিকালে ছয় ট্রাক মাছের মধ্যে মাত্র এক ট্রাক আমরা হাতে পাই। রাতের মধ্যে আরও পাঁচ ট্রাক মাছ আসার কথা। সোমবার সকালে মাছ রপ্তানির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কাস্টমসে দাখিল করব। তারপর মাছ রপ্তানি হবে। প্রতি কেজি ইলিশ ছয় ডলার মূল্যে রপ্তানি করা হচ্ছে। বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজির দাম পড়বে ৫০০ টাকা। ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টম থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ইলিশের এ চালান ছাড় করা হবে।

ইলিশ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ঢাকার গাজীপুরের একুয়াটিক রিসোর্ট লিমিটেড। আমদানিকারক ভারতের কলকাতার নাজ ইমপেক্স প্রাইভেট লিমিটেড।

প্রসঙ্গত, দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ৫০০ টন ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ সরকার। যদিও ২০১২ সালের আগ পর্যন্ত ভারতে ইলিশ রপ্তানি করা হতো। তবে দেশে ইলিশের উৎপাদন কমে যাওয়ায় ২০১২ সালের পর রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

 143 total views,  1 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018