মঠবাড়িয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ পাইয়ে দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ - বিডি বুলেটিন মঠবাড়িয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ পাইয়ে দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ - বিডি বুলেটিন

শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
মোংলা সাহিত্য পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত কুয়াকাটায় ২৪ ঘন্টা পর নিখোজ জেলের লাশ উদ্ধার ডইলি ইন্ডাস্ট্রি পত্রিকার সম্পাদকের পিতার মৃত্যুতে উজিরপুরে বিভিন্ন মহলে শোক কুয়াকাটায় পরিবেশ রক্ষায় টোয়াকের উদ্যোগে সপ্তাহ ব্যাপী বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচী প্রবাসী বাবার সাথে বিধবা নারীর অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগে মেয়ের সাংবাদিক সম্মেলন বাউফলে এক গৃহ বধূকে প্রকাশ্যে বিবস্ত্র করে রাজাপুরে মুজিব জন্মশতবার্ষিকীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে ফলদ-বৃক্ষ চারা বিতরন ও স্কুলে চারা রোপন পরিবেশের ভারসাম্য ধরে রাখতে গাছ লাগান: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ১৬ জুলাই বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধনকালে পুরো বাংলাদেশে ১ কোটি বৃক্ষ রোপন! করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ঝরল ৩৪ প্রাণ, শনাক্ত ২৭৭৬
মঠবাড়িয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ পাইয়ে দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

মঠবাড়িয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ পাইয়ে দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

Print Friendly, PDF & Email

মো.বাদল বেপারী,পিরোজপুর প্রতিনিধি:
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ পাইয়ে দেয়ার নামে হেমায়েত পাত্তর ও ধলু খান নামে দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ২০টি পরিবারের কাছ থেকে অর্ধ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ২০টি বিদ্যুৎ গ্রাহক এ মর্মে স্বাক্ষর করে স্থানীয় সাংসদ বরাবরে অভিযোগ করেছেন। সাংসদ ও জাতীয় সংসদের সরকারি হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডাঃ রুস্তুম আলী ফরাজী এ ঘটনায় পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সহকারি জেনারেল ম্যনেজারকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। হেমায়েত পাত্তর উপজেলার নিজামিয়া গ্রামের মৃত. আঃ ছত্তার পাত্তরের ছেলে ও ধলু একই এলাকার নবী হোসেন খানের ছেলে।
সরেজমিনে গেলে ভুক্তভোগী নূরুজামাল, নুর হোসেন, শফিকুল, আবু হানিফ খান, আঃ মানান, ইউনুচ, সুফিয়া বেগম মাসুদ হাওলাদার, তাছলিমা বেগম জানান, বিদ্যুৎ সংযোগ পাইয়ে দেয়ার কথা বলে হোমায়েত পাত্তর তাদের কাছ থেকে ২৫‘শ থেকে ৪ হাজার করে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। ধলু খান তাকে সহযোগিতা করেছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ স্বামী পরিত্যাক্তা প্রতিবন্ধি তাছলিমা বেগমের কাছ থেকেও ৩৮‘শ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। যা খুবই ন্যক্কার জনক। টাকা ফেরৎ দেয়ার ব্যপারে স্থানীয়ভাবে বৈঠক দিলেও তারা কোন কর্ণপাত করেনি তারা।
এব্যপারে অভিযুক্ত ধলু খান নিজেকে নির্দোষ দাবী করে অকপটে স্বীকার করেন, হেমায়েত পাত্তর টাকা তুলেছে, যা তিনিই খরচ করেছেন। বিদ্যুৎ লাইন আনতে আমি হেমায়েত পাত্তরকে সহযোগিতা করেছে। কারো কাছ থেকে আমি টাকা গ্রহণ করিনি। বক্তব্য নেয়ার জন্য হেমায়েত পাত্তরের বাড়িতে গেলে তাঁকে পাওয়া যায়নি।
পিরোজপুর পল্লী বিদ্যুৎ এর সহকারি জেনারেল ম্যানেজার মো. জুলফিকার হোসেন জানান, তদন্ত করে দোষী প্রমানিত হলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতোমধ্যে ওই এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে।

 203 total views,  1 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018