সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
আগৈলঝাড়ায় উন্নয়নের বাঁধে পচা পানিতে বন্দি তিন ইউনিয়নের কয়েক লাখ বাসিন্দা আগৈলঝাড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি গ্রেফতার রক্তাক্ত একুশে আগস্টে শিশু সুমাইয়ার রক্ত ক্ষরণ হচ্ছেঃ মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা বাবুগঞ্জে সাবেক এমপি মীরগঞ্জ নদী ভাঙন এলাকা পরিদর্শন ’৭১ ও ৭৫’র ঘাতক ও এদের পৃষ্ঠপোষকদের সকল ষড়যন্ত্র ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবেলা করা হবে পিরোজপুরে মোবাইলের জন্য কলেজ ছাত্রের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা বাউফলে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় স্বাস্থ্য সহকারীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়নি! পটুয়াখালীতে ভুয়া সচিবকে অর্থদণ্ড গুরুদাসপুরে গরিবের ঘর মেম্বারদের বাড়িতে যুদ্ধের কারণে কর্মহীন বাবা, খাবারের অভাবে হাড্ডিসার শিশুসন্তান
শিশুর মাথা ব্যাগে নিয়ে মদ খেতে গিয়েছিল রবিন

শিশুর মাথা ব্যাগে নিয়ে মদ খেতে গিয়েছিল রবিন

অনলাইন ডেস্ক : নেত্রকোনায় প্রতিবেশী শিশু সজিব মিয়া (৭) মিয়াকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় নেশাগ্রস্ত বখাটে যুবক রবিন (২৮) গণপিটুনিতে নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের নিউটাউন পুকুরপাড় এলাকায় গণপিটুনিতে রবিন নিহত হন।

নিহত যুবক রবিন শহরের পূর্ব কাটলি এলাকার এখলাছুর রহমানের ছেলে। গলা কেটে হত্যার শিকার শিশু সজীব একই এলাকার রিকশাচালক রইস উদ্দিনের ছেলে। নেত্রকোনা মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে শিশুটির মাথা কাটার রহস্য এখনো খুঁজে পায়নি পুলিশ।

শিশু সজিবের মা শরীফা বলেন, সকালে ঘর থেকে পাঁচ টাকা নিয়ে বের হয় সজিব। দুপুরে আর ঘরে ফেরেনি সে। সন্দেহ হলে খোঁজাখুঁজি শুরু করি আমরা। একপর্যায় জানতে পারি শহরের নিউটাউন এলাকায় এক শিশুর দেহ বিচ্ছিন্ন কাটা মাথা নিয়ে ধরা পড়া যুবককে গণপিটুনি দিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। খোঁজ নিয়ে নিশ্চিত হই দেহ বিচ্ছিন্ন মাথাটি শিশু সজীবের। গণপিটুনিতে নিহত যুবক রবিন আমাদের প্রতিবেশী।

নিহত শিশু ও যুবকের প্রতিবেশীরা জানান, দুপুরে একটি ব্যাগে করে সজীবের কাটা মাথা নিয়ে মদপান করতে যায় রবিন। পরে হরিজন সম্প্রদায়ের লোকজন কৌতূহল নিয়ে ব্যাগে কি আছে দেখতে চান। এ সময় রবিন জানায় ব্যাগে মাছ আছে। কিন্তু ব্যাগ থেকে রক্ত গড়াতে থাকলে ব্যাগ চেক করে হরিজনরা। ওই সময় তারা দেখতে পান ব্যাগে শিশু সজীবের কাটা মাথা। তাৎক্ষণিক দৌঁড় দিয়ে পালাতে চেষ্টা করে রবিন।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ জনতা তাকে ধাওয়া করে নিউটাউন পুকুরপাড় এলাকায় সজীবের কাটা মাথাসহ ধরে ফেলেন। সেই সঙ্গে তাকে গণপিটুনি দিয়ে মেরে ফেলা হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে রবিনের মরদেহ ও শিশু সজীবের কাটা মাথা উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এর কিছুক্ষণ পর সজীবের বাসার সামনের সড়কের কায়কোবাদের নির্মাণাধীন ভবনের তিনতলা থেকে মস্তক বিচ্ছিন্ন মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নেত্রকোনার পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী বলেন, ঘটনার কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে শিশু সজীব ও বখাটে রবিনের পরিচয় শনাক্ত করে পুলিশ। সজীবের মস্তক বিচ্ছিন্ন মরদেহটি তার বাসার সামনের সড়কের পূর্ব কাটলি এলাকার নির্মাণাধীন একটি ভবনের তিনতলা থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী জেলাবাসীকে শিশুদের প্রতি খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়ে বলেন, আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। মূলত এটি বিচ্ছিন্ন একটি ঘটনা। এ ঘটনার রহস্য খুঁজছি আমরা।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018