রবিবার, ২১ Jul ২০১৯, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন

তাহিরপুরে স্কুলছাত্র রুবেল হত্যায় তিনজনের যাবজ্জীবন

তাহিরপুরে স্কুলছাত্র রুবেল হত্যায় তিনজনের যাবজ্জীবন

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় রুবেল পুরকায়স্থ হত্যা মামলায় পিতা-পুত্রসহ তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়া প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরো দুই মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। সোমবার বেলা ১১টায় এই দণ্ডাদেশ দেন সুনামগঞ্জের দায়রা ও জজ আদালতের অতিরিক্ত দায়রা জজ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন।
নিহত রুবেল পুরকায়স্থ উপজেলার চিকসা গ্রামের রনজিৎ পুরাকায়স্থের বড় ছেলে। সে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসপি পরীক্ষার্থী ছিল।
দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- তাহিরপুর উপজেলার চিকসা গ্রামের মির্জা হাছন আলী ও তার দুই পুত্র নোমান মিয়া ও কালা মিয়া।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সোহেল আহমদ সইল মিয়া এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এছাড়াও এই ঘটনায় মির্জা মশ্রব আলী, নাছির উদ্দিন খান, শায়েস্তা মিয়া ও বাবুল মিয়া নামে চারজনকে মামলা থেকে খালাস দেয়া হয়েছে।

নিহত রুবেলের বাবা রনজিৎ পুরকায়স্থ এই রায়ে খুশি নয় বলে জানান, আমরা ফাঁসির দাবি জানিয়েছিলাম। কিন্তু আদালত যাবজ্জীবন দিয়েছে। আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ‘২০০০ সালের ২০ আগস্ট রাতে তাহিরপুর উপজেলার চিকসা গ্রামের রনজিৎ পুরাকায়স্থের বড় ছেলে রুবেল মিয়াকে পড়ার টেবিল থেকে কাজের কথা বলে বাড়ির বাইরে নিয়ে যায় প্রতিবেশী মির্জা হাছন আলীর ছেলে নোমান মিয়া। মধ্যরাত হওয়ার পরও ছেলে না আসায় ঘুমিয়ে পড়ে রনজিৎ ও তার স্ত্রী। রাত ২টায় বাইরে চোর চোর চিৎকার শুনে রনজিৎ ও স্ত্রী উষারাণী এগিয়ে গেলে তখন প্রতিবেশী মির্জা হাছন আলী ও তার দুই পুত্র নোমান মিয়া ও কালা মিয়া চোর অপবাদ দিয়ে ছেলে রুবেলকে খুনের হুমকি দিয়ে শাসিয়ে যান। এসময় রনজিৎ ও স্ত্রী উষারাণী ছেলে রুবেলের রক্তাক্ত দেহ পুকুরপাড়ে পড়ে থাকতে দেখেন। গুরুতর আহত রুবেল তার মা-বাবাসহ সাক্ষীদের কাছে বলেন চোর অপবাদ দিয়ে প্রতিবেশী মির্জা হাছন আলী ও তার দুই পুত্র নোমান মিয়া ও কালা মিয়া ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা করেছে তাকে। এক পর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে গেলে রুবেলকে তাহিরপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় পরদিন চিকসা গ্রামের মির্জা হাছন আলী ও তার দুই পুত্র নোমান মিয়া ও কালা মিয়াসহ সাতজনকে আসামি করে নিহত রুবেলের পিতা রনজিৎ মামলা করেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018