শনিবার, ২০ Jul ২০১৯, ০৫:১১ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বৃষ্টি বিহীন আষাঢ়ে পানিতে গাঁ চুবিয়ে বেঁচে থাকার নিরন্তর চেষ্টা পশুদেরও

বৃষ্টি বিহীন আষাঢ়ে পানিতে গাঁ চুবিয়ে বেঁচে থাকার নিরন্তর চেষ্টা পশুদেরও

শহিদুল ইসলাম।।চলছে লঞ্চ স্পিরিট বোর্ড সহ নানা নৌযান তাতে শব্দ আর পানির ঢেউও মিলছে।নদীর পাড় দিয়ে মানুষ চলছে হরদম।এমন জনাকীর্ণ জায়গায়ও ওদের ভয় ধরাতে পারছে না। প্রশান্তির পানিতে গা চুবিয়ে বেঁচে থাকার নিরন্তর চেষ্টা করছিল পশু নামের এই কুকুরটিবেলা তখন আকাশের মধ্যসীমা পার করেছে। রোদের তেজ যে প্রাণীকূলে সইছে না তার প্রমাণ সর্বত্রই মিলছে। নইলে কি আর সাধে কুকুর গুলি নদীর পানিতে গা ভিজিয়ে জলকেলি খেলে!আষাঢ় মাসের প্রথম সপ্তাহে ও টানা গরমে নগরবাসী হাঁপিয়ে উঠছে দিনের দিনের পর দিন। দাবদাহ চলছে রাতেও। উত্তাপ থাকবে আরও কয়েকদিন। গরম থেকে বাঁচতে নাভিঃশ্বাস উঠছে, একটু বাতাস, একটু ছাঁয়া পেতে মন আনচান করছে সবারই।অসহনীয় গরমে কীর্তন খোলা নদীর তীর বর্তী মুক্তিযোদ্ধা পার্ক এ যেন প্রশান্তির হাতছানি দিচ্ছে।এ পাড়ের মানুষের মনে একটু হলেও শান্তি বয়ে আনছে নয়নাভিরাম বিশুদ্ধতায় ভরা মনের তৃষ্ণা মেটানো স্বস্তির বাতায়ন। তাতে সাড়া দিয়ে প্রাণ জুড়াচ্ছে নগরবাসির। শুধু মানুষ নয় সাড়া দিতে দেখা যায় পশুপাখিও।গতকালও দীর্ঘক্ষণ কীর্তন খোলা পানিতে নেমে শরীর ভিজিয়ে থাকতে দেখা যায় কুকুর থেকে শুরু করে মহিশ গরু নানা জাতের পাখি। গরম তাড়াতেই যে ওদের পানিতে নেমে পড়া, তা খুব সহজেই বোঝা যাচ্ছিল। অনেকেই রাস্তা থেকে মোবাইলে ছবি তুলছিল আবার। তাতেও ওদের দৃষ্টি কাড়ছিল না।অসহনীয় গরম বলে কথা।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018