শনিবার, ২০ Jul ২০১৯, ০৫:১৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
‘মৃত্যুদণ্ড’ হবে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তিঃ প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

‘মৃত্যুদণ্ড’ হবে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তিঃ প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

ডেস্ক রিপোর্ট: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সাধারণ ছাত্রীরা ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি ‘মৃত্যুদণ্ড’ দেওয়া ও ধর্ষণ মামলায় ট্রাইব্যুনাল গঠন করে ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বিচার কাজ শেষ করার দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন । এর আগে তারা রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি দেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টায় ঢাবি টিএসসি সংলগ্ন সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাষ্কর্যের পাদদেশে ‘সচেতন নাগরিক সমাজ’ এর ব্যানারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে ঢাবির বিভিন্ন হল ও অনুষদের প্রায় ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন।

মানববন্ধনে ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাহসান আহমেদ রাসেল, শামসুন্নাহার হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জিয়াসমিন শান্তা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, আমরা চাই ধর্ষকদের প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হোক। ধর্ষণের যে মামলাগুলো আছে সেগুলো দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের আওতায় এনে ৩০ দিনের মধ্যে যেন বিচার করা হয়। সংসদ সদস্যদের প্রতি আহ্বান থাকবে, তারা যেন সংসদে এসব বিষয়ে কথা বলেন।

মানববন্ধন শেষে সন্ধ্যায় ছাত্রীদের ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ধানমন্ডিতে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে গিয়ে স্মারকলিপি দেন। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্মারকলিপিটি গ্রহণ করেন।

এর আগে সকালে সাড়ে ১১টায় রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে এক মাসের মধ্যে ধর্ষককে প্রকাশ্যে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার দাবিতে কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। এতে ডাকসু, হল সংসদসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

বেলা সাড়ে দশটায় এ দুই দাবিতে ঢাবির চারজন ছাত্রী বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি দেন। রাষ্ট্রপতির পক্ষে তার প্রেস সচিব স্মারকলিপিটি গ্রহণ করেন। স্মারকলিপি দেয়া ঢাবি শিক্ষার্থীরা হলেন- ইশাত কাসফিয়া ইরা, জিয়াসমিন শান্তা, মাকসুদা আক্তার তমা, সাবরিনা তাবাসসুম নিথিয়া প্রমুখ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © bdbulletin.com 2018